বনু নাদির: মহানবীকে হত্যার ইহুদী ষড়যন্ত্রকারী


পারভেজ সেলিম


মহানবীকে হত্যার ষড়যন্ত্রের কথা ফাঁস হয়ে যায় বনু নাদির গোত্রের বিরুদ্ধে। এই বিশ্বাস ভঙ্গের আযুহাতে  তাদের দশদিনের মধ্যে মদীনা থেকে চলে যেতে বাধ্য করা হয়। 

তারা মহানবীর এ নির্দেশ অমান্য করেন । খাজরাজ গোত্রের প্রধান আবদুল্লাহ ইবনে উবাই এর প্ররোচণার মুসলমানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হয়। পরে যুদ্ধ না করে অবরোধেই পরাজয় বরণ করেন ইহুদীরা। বাধ্য হন নিজের শহর  মদীনা ছেড়ে চলে যেতে।

তবে ঘটনার শুরু আরেকটু আগে

সাল ৬২৫ সালের আগস্ট মাস।

বনু কিলাব গোত্রের দুইজন ব্যক্তি বিনাদোষে হত্যার শিকার হন মুসলমানদের হাতে।

আমর ইবনে দামারী নামের  এক  মুসলমান এই হত্যাকান্ড ঘটান।

এই নিয়ে মহানবীর মনে দু:খ ছিল। তিনি রক্তপণ বা হত্যার বদলা স্বরুপ ক্ষতিপুরুণ দিতে চেয়েছিলেন বনু কিলাব গোত্রকে।

 এই নিয়ে ইহদী বনু নাদির গোত্রের সাথে আলোচনায় বসেন তিনি। কারণ মদীনা সনদ অনুযায়ী হত্যার ক্ষতিপুরুণ মুসলমান ও ইহুদী দুই গোত্র মিলেই বহন করার শর্ত আছে।

সেই আলোচনায় হয়রত আবু বকর (রা.) হয়রত উমর (রা.) ও হয়রত আলী (রা.) সহ মহানবীর ঘনিষ্ঠ সাহাবীর আরো কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন।

সেসময় কাব ইবনে আল আশরাফ ও হুয়াই ইবনে আখতাব ছিল বনু নাদির গোত্রের প্রধান ।

মহানবী অন্য সাহাবীদের নিয়ে যখন বনু নাদির গোত্রের যান তার প্রথমে রক্তপণ দিতে সম্মতি জানালেও পরে তা না দিয়ে মহানবীকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। 

মহানবীকে যে দেয়ালে পাশে বসতে দিয়েছিল সেখানে উপর থেকে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যার ফাঁদ পেতেছিলেন তারা।

মহানবী এ তথ্য জিব্রাইল (আ.) মারফত পেলে, দ্রুত ঐ স্থান ত্যাগ করে মদিনায় চলে আসেন। 

সুরা আল হাশর এ এই তথ্য ফাঁস হবার বর্ননা আছে ।

পরবর্তীতে মহানবীকে হত্যার ষড়যন্ত্রে যুক্ত থাকা এবং মদীনা সনদ ভঙ্গের অপরাধে ইহুদীদের দশদিনের মধ্য মদিনা ত্যাগের নির্দেশ দেন মহানবী। 

বনু নাদির সেই শর্ত মেনে নিলেও খাজরাজ গোত্রের প্রধান আবদুল্লাহ ইবনে উবাই তাদের সাহায্যের আশ্বাস দেন। তার প্ররোচনায় ইহুদীরা মুসলমানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ঘোষণা করেন।

পরে আবদুল্লাহ তাদের সাহায্য করতে অসামর্থ হলে ১৫ দিন অবোরোধ থাকার পর মুসলমানদের কাছে আত্নসমর্পন করতে বাধ্য হয় এবং মদিনা ছেড়ে চলে যেতে রাজি হয়।

মদিনা থেকে বিতাড়িত হওয়া দ্বিতীয় ইহুদি গোত্র বনু নাদির। মহানবীকে হত্যার ষড়যন্ত্রের দায় মাথায় নিয়ে তারা মদিনা ছেড়ে চলে যান।

মদিনায় তখন আর একটি মাত্র ইহুদী গোত্র অবস্থান করছিল সেটি হলো বনু কুরাইজা। শেষ পর্যন্ত এই ইহুদি গোত্রের ভাগ্যও ছিল নির্মম পরিনতি।


পারভেজ সেলিম

লেখক,সাংবাদিক ও চলচ্চিত্রকর্মী


আরো পড়ুন :

৪ thoughts on “বনু নাদির: মহানবীকে হত্যার ইহুদী ষড়যন্ত্রকারী

  1. Are you searching for a stamp maker? Our organization creates custom stamps for a range of purposes. We use the latest technology to ensure each stamp is precise and of excellent quality. Choose from a extensive variety of sizes and designs, or send us your illustration for a custom stamp. We offer stamp maker fast turnaround times and outstanding customer service. Let us assist you create the ideal stamp.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x