শ্রীলংকা: ভারত মহাসাগরের একটি মুক্তোদানা

পারভেজ সেলিম
পারভেজ সেলিম ।।

শ্রীলংকার এক পাহাড়ে সাড়ে সাত হাজার ফিট উপরে ৩০০ খ্রি.পুর্বে মানুষ দেখলো বিশাল এক গর্ত। আকৃতি অনেকটা মানুষের পায়ের মতো। কিন্তু এত বিশাল মানুষ এখানে কোথা থেকে এল?

মুসলমান ও খ্রিষ্টানরা মনে করে এটা পৃথিবীর প্রথম মানব আদমের পায়ের ছাপ। বেহেস্ত থেকে বিতাড়িত হবার পর আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে একহাজার বছর এক পায়ে এখানে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। এটা সেই দাঁড়িয়ে থাকা পায়ের দাগ। ‘অ্যাডামস পিক’ বা  ‘আদমের চুড়া’ নামে পরিচিত হয়ে উঠল পাহাড়টি।

‘অ্যাডামস পিক’ বা  ‘আদমের চুড়া’ যে পাহাড়ে ।

হিন্দুরা মনে করে এটা তাদের দেবতা শিবের পায়ের ছাপ। আর বৌদ্ধদের বিশ্বাস এটা বুদ্ধের পায়ের চিহ্ন। গৌতম বুদ্ধ যখন শ্রীলংকায় এসেছিলেন এটা সে সময়কার।

এমন করে রাম সেতু নিয়েও নানা কিংবদন্তি চালু আছে। হিন্দুমতে রামায়ণে রামের নির্দেশে হনুমান যে সেতু বানিয়েছিল, রাবণকে বধ করতে গিয়েছিল যে পথে এটা সেই সেতু।

মুসলমানদের দাবি এটা আদম সেতু। আল্লার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা শেষে এই পথে আদম ভারতে প্রবেশ করেছিলেন।

এ দ্বীপে ৩৫ হাজার বছর আগের মানবদেহের ফসিল পাওয়া গেছে। বোঝা যায় কত প্রাচীনকাল থেকে এখানে সভ্যতার উন্মেষ ঘটেছিল।

এসব কিছুই শ্রীলংকাকে এক অন্য উচ্চতা দান করেছে। মানব ইতিহাসের ধর্ম ও বিজ্ঞান এখানে একসাথে হাত ধরাধরি করে হাঁটছে।

সারা বছর হাজার হাজার মানুষ অনেক আগ্রহ নিয়ে ভীড় জমায় দ্বীপ রাষ্ট্রটিতে।

সৌন্দর্য্য মন্ডিত শ্রীলংকাকে বলা হয় ভারত মহাসাগরের একটা মুক্তো দানা। সেই মুক্তোর মতো দ্বীপরাষ্ট্রটিতে এখন কালো মেঘের ঘনঘটা।


‘জীব হত্যা মহাপাপ’… বুদ্ধ

শেষের কথা :

হিন্দুমতে শ্রীলংকা রাবণের দেশ। যাকে সহস্র বছর ধরে একটা নেতিবাচক চরিত্র হিসেবে দেখানো হয়েছে এই অঞ্চলে। সাধারণ মানুষের মনে রাম ভালো আর রাবণ হচ্ছে মন্দের প্রতীক।

কিন্তু অনেক বছর পরে মাইকেল মধুসদন দত্ত একটা মহাকাব্য লিখলেন ‘মেঘনাদবদ কাব্য’ নামে। যেখানে রাম হয়ে উঠলেন দখলদার, আক্রমণকারী এক দস্যু আর রাবণ হয়ে উঠলেন দেশপ্রেমিক, আদর্শিক এক হত্যভাগ্য পিতা। এত বছরের খলনায়ক হয়ে গেলেন নায়ক।

কি অদ্ভুত! শ্রীলংকায় এমন চরিত্র একাধিক পাওয়া যায়। সিংহলীদের কাছে এক সময় মাহেন্দ্র রাজাপাকসে নায়ক ছিলেন, আর এখন তিনি খলনায়ক।

অন্যদিকে ভিলুপিল্লাই প্রভাকরণকে সিংহলীরা রাবণ ভাবলেও, তামিলদের কাছে তিনি রাম বা রক্ষাকর্তা। তাদের সুর্যদেবতা।

অন্যদিকে ইসলাম মতে প্রথম মানব হচ্ছেন আদম, যিনি বেহেস্ত থেকে বিতাড়িত হয়েছিলেন। এক হাজার বছর স্রষ্টার কাছে ক্ষমা প্রার্থণা করেছিলেন এই শ্রীলংকায় দাঁড়িয়ে। ক্ষমা পেয়েছেন কিনা জানি না তবে নিষিদ্ধ ফল খাবার শাস্তি এখনও ভোগ করছে মানুষ।

‘জীব হত্যা মহাপাপ’ বলা বুদ্ধ অনুসারীরা এখনও মানুষ হত্যা করছে নিজ দেশেই।

আদম, রাম-রাবণ ও বুদ্ধের মিলন যে দেশে সেই দ্বীপ দেশ শ্রীলংকা নিশ্চয়ই আপন শক্তিতে আবারো জ্বলে উঠবে। অপেক্ষা শুধু সময়ের!!

 (সমাপ্ত)

সেলিম পারভেজ
লেখক, সাংবাদিক ও চলচ্চিত্রকর্মী

আরো পড়ুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x