ইসরায়েল -ফিলিস্তিনের মুল দ্বন্দ্ব কি কি ?

0Shares

পারভেজ সেলিম

পারভেজ সেলিম ।।


ফিলিস্তিন বলতেই আমাদের চোখের সামনে ভেসে ওঠে বিধ্বস্ত ভবনের পাশে বিষন্ন কোন শিশুর মুখ। আর ইসরায়েল বলতে ভারী আধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত একদল সৈন্যের বন্দুকের সামনে নিরস্ত্র ভয়হীন কোন যুবকের ছবি।ইসরাইল-ফিলিস্তিনের ইতিহাস মানেই বিপন্ন মানুষের ইতিহাস।

আজ ৭৩ বছর ধরে এই দ্বন্দ্ব চলছে । ইসরায়েল ফিলিস্তিনের এই দ্বন্দ্বের মুল কারণ গুলো কি কি? এই সমস্যার কি কোন সমাধান আছে ?


দ্বন্দের প্রধান কারণ :

ইসরায়েল দাবি করে জেরুজালেম শহরের উপর তাদের সার্বভৌম অধিকার আছে । ১৯৬৭ সাল থেকে তারা শহরটিকে তাদের রাজধানী হিসেবে দখল করে রেখেছে।আর ফিলিস্তিনিরা পূর্ব জেরুজালেমকেই তাদের রাজধানী হিসেবে চায়।

ফিলিস্তিনীরা চায় ১৯৬৭ সালের যুদ্ধের আগে সীমান্ত যেমন ছিল সেভাবেই  ফিলিস্তিন রাস্ট্র গঠিত হবে। ইসরাইল এখন তা মানতে নারাজ ।

১৯৬৭ সালের যুদ্ধে ইসরায়েল যেসব এলাকা দখল করে বসতি গড়ে তুলেছে সেসব অবৈধ বসতির অপসারণ চায় ফিলিস্তিন । ইসরায়েল তাতে রাজি নয় । আন্তর্জাতিক আইন অমান্য করে ৫ লাখ ইহুদীর বসতি স্থাপন করেছে পশ্চিম তীরে ।

১৯৪৮ সালে পর থেকে লাখ লাখ ফিলিস্তিনি তাদের বসতবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছিল । বর্তমানে তাদের বংশধরদের সংখ্যা ১ কোটি ছয় লাখ । তারা তাদের পৈত্রিক ভিটায় ফিরতে চায় । ইসরাইল এদের অধিকারকে মানতে নারাজ। ইহুদীরা মনে করে তারা ফিরলে ইসরায়েল রাস্ট্র হিসেবে টিকতে পারবে না। বর্তমানে  ইসরাইলে মোট ইহুদী ৯০ লাখ। ১৯৪৮ সালে তারা ছিল ৬ লক্ষ।


আরো পড়ুন : ইসরাইল-ফিলিস্তিন দ্বন্দ্বের ইতিহাস (পুরো পর্ব)


 সংকট সমাধানের পথ কি আছে ?

এই সংকটের সমাধান আদৌ কি আছে ? খুব কঠিন প্রশ্ন । আচ্ছা একটি সাম্ভব্য সমাধান দেখা যাক, ফিলিস্তিনকে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে মেনে নিয়েছে ইসরাইল। সাথে ১৯৪৮ এর জাতিসংঘের ভুমি বন্টন চুক্তিকে মেনে নিয়েছে। নিজস্ব ভুখন্ডে ফিলিস্তিনিদের চলাচল অবাধ করা হয়েছে। হামাসকে মেনে নিয়েছে ইসরাইল। তাহলে কি সমাধান হবে না ?  হবে হয়ত। কারন ইয়াসির আরাফাতের ফিলিস্তিনের স্বপ্ন তো এমনই ছিল। কিন্তু ইসরায়েল কি এখন তা করবে ? মনে হয় না।

আর উল্টো দিকে ফিলিস্তিনসহ পুরো আরব বিশ্ব একটি ইহুদী রাষ্ট্র হিসেবে যদি মেনে নেয় ইসরাইলকে। সব ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড যদি পরিহার করে হামাস এবং রাষ্ট্র হিসেবে মেনে নেয় ইসরাইলকে। তাহলে কি সংকট সমাধান হবে না ? হবে হয়ত । কিন্তু ফিলিস্তিন কিংবা পুরো আরব বিশ্ব কি তা করবে ? মনে হয় না।

সবচেয়ে জটিল প্রশ্ন হচ্ছে জেরুজালেম কার হবে ? এই সংকটের সমাধান হলেই হয়ত সকল সংঘাতের সমাধান সহজ হতো।কিন্তু এ বিষয়ে ফয়সালা হওয়াই সবচেয়ে জটিল।

সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে চলমান  ইসরাইল- ফিলিস্তিন যুদ্ধে এক লক্ষের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। গৃহহীন হয়েছে কয়েক লক্ষ ফিলিস্তিনি।বাকিরা এক অন্ধকারময় ভবিষ্যৎ নিয়ে সেখানে বসবাস করছে । 

কত প্রজন্মের অপেক্ষার পর, আর কত মানুষের মৃত্যু হলে, শান্তি ফিরে আসবে ফিলিস্তিনে, তা সত্যিই মানুষের অজানা।


পারভেজ সেলিম

লেখক ও চলচ্চিত্রকর্মী

ইসরায়েল- ফিলিস্তিন নিয়ে আরো পড়ুন :

0Shares

৪৪ thoughts on “ইসরায়েল -ফিলিস্তিনের মুল দ্বন্দ্ব কি কি ?

  1. I’ve been exploring for a little bit for any high quality articles or blog posts in this kind of area . Exploring in Yahoo I at last stumbled upon this web site. Reading this info So i am happy to show that I have an incredibly good uncanny feeling I came upon just what I needed. I so much surely will make certain to do not fail to remember this site and provides it a look regularly.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x