রাজাপাকসে: প্রতাপশালী যে পরিবারের হাতে ধ্বংস দেশ

পারভেজ সেলিম
পারভেজ সেলিম ।।

শ্রীলংকান রাজনীতিতে আরেকটি গুরুত্বপুর্ণ পরিবার হচ্ছে রাজাপাকসে পরিবার।

২০০৯ সালে তামিল টাইগারদের নির্মূল করার পর তারা ভেবেছিল দেশটির বাপ মা তারাই হয়ে গিয়েছে। পরিবারের নামে যাদুঘর বানিয়েছিলেন তারা সরকারি খরচে। সেটা এখন ভেঙ্গে চুরমার করে দিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। এই প্রতাপশালী পরিবারের প্রধানতম ব্যক্তিটি হলেন মাহেন্দ্র রাজাপাকসে।

টানা ১০ বছর দেশটির রাষ্টপতি ছিলেন ২০০৫ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত। এর আগে ২০০৪ সালে ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।মাত্র ২৪ বছর বয়সে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। হয়েছিলেন মন্ত্রীও।

রাজাপাকসে পরিবার

২০০৯ সালে তামিল টাইগারদের নির্মূল করার পর তিনি ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন সিংহলী মানুষদের কাছে।  তবে ভয়াবহ নৃশংসতা চালানোয় উত্তরাঞ্চলের তামিল ও অন্যান্য সংখ্যালঘু জনগোষ্টির কাছে তিনি খুবই নিষ্ঠুর ও নিন্দনীয় ব্যক্তি। ২০১৫ সালের নির্বাচনে ক্ষমতা হারান মাহেন্দ্র।

২০১৯ সালের নভেম্বরে আবারো ক্ষমতায় আসে রাজাপাকসের পরিবার। এবার ছোটভাই গোটাবায়া রাজাপাকসে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। গোটাবায়া ছিলেন সেনাবাহিনীর লোক। ২০০৯ সালে তামিলদের হত্যার মাস্টারমাইন্ড ধরা হয় তাকে। তেলবাজ সমর্থকরা তাকে ‘টার্মিনেটর’ নাম উপাধি দিয়েছিল। নির্বাচনে জয়ের পর আবারও ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসে পরিবারটি।

গোটাবায়া আবারো প্রধানমন্ত্রী বানান বড়ভাই মাহেন্দ্রকে। দ্বিতীয় মতো প্রধানমন্ত্রী হন তিনি। শ্রীলংকার রাজনীতি একমাত্র ব্যক্তি যিনি দুইবার প্রধানমন্ত্রী ও দুইবার রাষ্টপতি নির্বাচিত হন।

এছাড়া অনাকোরা আরেক ভাই বাসিলকে অর্থমন্ত্রী বানান, যাকে মিস্টার ১০ পার্সেন্ট নামেই মানুষ বেশি চেনে। আরেক ভাই চামিলকে বানানো হয় মন্ত্রী। তার ছেলে শশীন্দ্রও মন্ত্রী হন।

মাহেন্দ্রের দুই ছেলে প্রভাবশালী হয়ে ওঠে অল্প বয়সেই। বড় ছেলেকে বানান মন্ত্রী আর ছোটটাকে প্রধানমন্ত্রীর চিফ স্টাফ। গোটা পরিবার মিলেই চালাতে থাকেন সরকার।

জাতীয়তাবাদের ঘৃণার রাজনীতি শুরু করে তারা। তারা মনে করে সিংহলীরাই  শ্রীলংকার আসল মালিক। যারা মুলত বৌদ্ধ। শ্রীলংকার রাষ্ট্রীয় ধর্ম এখন বৌদ্ধ। তামিলদের তারা দ্বিতীয় শ্রেনীর নাগরিক মনে করেন। সাথে মুসলমান, হিন্দুদের দেখা হয় ভিন্ন চোখে। ঘৃণা আর বিভক্তির রাজনীতিই এই পরিবারটির মুল চালিকাশক্তি।

তাদের পিতা ডন অলবিন রাজাপাকসে ছিলেন প্রবীণ রাজনীতিবিদ। ছিলেন কৃষি ও ভুমি মন্ত্রী। শ্রীলংকান ফ্রিডম পার্টির একজন প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছিলেন তিনি।

(চলবে…)

পারভেজ সেলিম

লেখক, সাংবাদিক ও চলচ্চিত্রকার

আরো পড়ুন :

২ thoughts on “রাজাপাকসে: প্রতাপশালী যে পরিবারের হাতে ধ্বংস দেশ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x