উমর : ইসলামের দ্বিতীয় খলিফার জীবনী

পারভেজ সেলিম

পারভেজ সেলিম ।।

ইসলামের ইতিহাস, ঐতিহ্য নিয়ে বিশাল ক্যানভাসে সিনেমা কিংবা টিভি সিরিজ নির্মাণে আরব দেশেগুলো সবসময় এগিয়ে। বেশ কিছু বছর ধরে ইসলাম নিয়ে বানানো অসংখ্য ওয়েব সিরিজ কাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে নেট দুনিয়া। কিন্তু এর শুরুটা সম্ভবত কিছুদিন আগে শুরু হয় টেলিভিশন দিয়ে।

হাতেম আলী নামের এক সিরিয়ান পরিচালক নির্মাণ করেন অসাধারণ এক সিরিজ ‘উমর ইবনে খাত্তাব’। ইসলামের দ্বিতীয় খলিফা উমর ইবনে খাত্তাবের ১৮ বছর বয়স থেকে মৃত্যু পর্যন্ত সময়কাল নিয়ে বানানো এই অসাধারণ সিরিজ। এটি নির্মিত হয় ২০১২ সালে। যেখানে উঠে এসেছে ইসলামে প্রথমদিকের সময়ের সকল ঘটনা। প্রচারের পর সিরিজটি ব্যাপক আলোচনা ও সমালোচনার জন্ম দেয়। 

খলিফা উমরের হজ্জ করতে আসা দিয়ে শুরু হয় সিরিজটি। যখন তিনি জীবনের শেষ প্রান্তে চলে এসেছেন। মক্কায় থেকে ফিরে যাবার সময় উটের পিঠে বসেই তিনি স্মৃতিকারত হয়ে পড়েন,তার স্মৃতিতে ভেসে ওঠতে থাকে ইসলামের প্রথম দিককার একের পর এক ঘটনা। শুরুটা হয় যখন উমর ছিলেন অমুসলিম এবং ইসলামের ঘোর বিরোধী। 

এরপর একে এক আগাতে থাকে গল্প। মোট ৩১ টি পর্বে ইসলামের প্রথম যুগের প্রায় সবকিছুই উঠে এসেছে বিস্তারিত ভাবে। তবে এটা দেখতে বসে আপনি হয়ত ‘ম্যাসেঞ্জার অফ গড’ সিনেমার সাথে কিছু মিল পেতে পারেন কারন এই গল্পটিও সেই একই রকমভাবে বলা হয়েছে।

প্রায় ৪২০ কোটি টাকার বিশাল বাজেটে নির্মিত সিরিজটি আরবি ভাষায় নির্মিত এযাবৎকালের সবচেয়ে ব্যয়হুল টিভি সিরিজ। প্রায় ৩০ হাজার কলাকুশলি ৩০০ দিন ধরে শুটিং করে এটি নির্মাণ করেছেন। ১০ দেশের  যোগ্য কর্মীরা যুক্ত হয়েছিল এই বিশাল কর্মযজ্ঞের সাথে। সিরিজটি সকল দৃশ্যের শ্যুটিং হয় মরোক্কোতে ।

মিডিল ইস্ট ব্রডকাস্টিং সেন্টার এটি প্রযোজনা এবং সম্প্রচার করেছিল। সৌদিআরব, তুরস্ক, ইরান, ইন্দোনেশিয়া সহ অনেক মুসলিম দেশে এটি জনপ্রিয় হয়েছিল হয়েছে। এখন ইউটিউবে অথবা বিঞ্জ অ্যাপে সব পর্বগুলোই পাওয়া যাবে। চাইলে দেখে নিতে পারেন ।

খলিফা উমরের চরিত্রে অভিনয় করেন সিরিয়ান অভিনেতা  সামের ইসমাইল তবে তার চরিত্রটিতে কন্ঠ দিয়েছেন আসাদ খলিফা নামের অন্য আরেকজন কন্ঠ শিল্পী ।

 আর আবু বক্কর চরিত্রে  অভিনয় করেছেন সিরীয় পরিচালক এবং অভিনেতা ঘাসান মাসুদ।  ‘কিংডম অফ হ্যাভেন’ সিনেমাটি যারা দেখেছেন তার হয়ত চিনবেন এই অভিনেতাকে। সালাউদ্দিনের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। চার খলিফার বাকি দুইজন উসমানের চরিত্রে তামের আল আরবেদ আর আলীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঘানেম জিরিল  ।

সিরিজিরটি আবহ সঙ্গীত খুবই দুর্দান্ত। তুর্কি মিউজিশিয়ান ফাহির আতাকোগলু এই অসাধারন কাজটি করেছেন।  এর আগে তুর্কি ধারাবাহিক সুলতান সুলেমানের সঙ্গীত করে তিনি খুব নাম কুঁড়িয়েছিলেন। 

 ‘উমর’ সিরিজটি প্রচারের পর থেকেই শুরু হয় বিতর্ক, আলোচনা আর সমালোচনা। পক্ষে বিপক্ষে নানা মত দাঁড়িয়ে যায়। সিরিজটি নিয়ে অধিক বিতর্কের প্রধান কারণ ছিল চার খলিফার প্রত্যক্ষ চরিত্রায়ন, যা পূর্বের কোন সিরিয়ালে করা হয় নি। এছাড়া আবু বকরের মৃত্যুর পূর্বের একটি দৃশ্যে বিবি আয়েশাকে ছায়া আকারে তার পিতার সঙ্গে নিঃশব্দে আলাপরত অবস্থায় দেখানো হয়। নবী,তার পরিবার ও সাহবীদের এভাবে দেখানো নিয়ে দ্বিমত আছে আলেমদের মধ্যে।

 এছাড়া সিরিজে বদরের যুদ্ধে উমাইয়া ইবনে খালাফকে নিজ হাতে হত্যা করতে দেখা যায় বিলালকে  কিন্তু ঐতিহাসিকদের মতে নিজে নয় বিলালের নির্দেশে তাকে হত্যা করেছিল দুজন আনসার।

এরকম কিছু ঐতিহাসিক বিষয়ে সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মিশরের আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয় সহ অনেক প্রতিষ্ঠান ও ইসলামিক ব্যক্তি।

তবে  প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের দাবি, এই সিরিজটি তৈরির আগে মিশরের পণ্ডিত শেখ ইউসেফ আল-কারাদাউয়ি’সহ ইসলামের বড় বড় পণ্ডিতদের সাথে আলোচনা করে তাঁদের সম্মতি নেওয়া হয়েছে। ফলে এ বিষয়ে বিতর্কের অবকাশ থাকে না।

বির্তককে বাদ দিয়ে আপনি যদি ইসলামের সেই প্রাথমিক অবস্থাটা দেখতে চান তাহলে অবশ্যই এই সিরিজটি আপনাকে আনন্দ দেবে। ইসলামের প্রথম সময়ে অনেক ঘটনা খুব সহজেই জানার সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হতে পারে ‘উমর ইবনে খাত্তাব’ সিরিজটি।

পারভেজ সেলিম

লেখক, সাংবাদিক ও চলচ্চিত্রকর্মী

ভিডিও সৌজন্যে : Banglabox

৪ thoughts on “উমর : ইসলামের দ্বিতীয় খলিফার জীবনী

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x