মড়ক রাত : শিল্পিত পারুর কবিতা

মড়ক রাত

            শিল্পিত পারু

.

কত মেঘ দেখো আকাশে আজ

কালো কি নিদারুণ কুচকুচে আলো

কখন কোথায় বেঁধেছি বিষের বাসা

দিনে দিনে তাই বিরোধ বাড়ালো ;

.

যখন কোথাও পাইনা কোন স্বর

যখন শ্বাস হয়ে আসে ধীর

তখন ভেসে ওঠে সন্তানের মুখ

অসুখ ছড়িয়ে থাকা শিকড় গভীর ;

.

তবু এ মেঘ মিলিয়ে যাবে একদিন

বৃষ্টি বিলাস মগজে হবে না তবু ক্ষয়

মানুষ যায় না কভু হেরে তারপর

যুদ্ধ শেষে ভাগাভাগি করে নেব জয়

.

আরো অনেক রয়েছে ভাগিদার

এ জমিন আমার একার তো কারো নয়

হাহাকার তারাও তো করেনি কম কিছু

ডাকে তাদের সাড়া মিলেছে কি মমতায় ?

.

ভেবেছিলে তুমি রাজার রাজা ঘোরাও সবার চাবি

এ আকাশে মাছি আছে কীট আছে আছে প্রজাপতি ,

ভুলে ছিলে যা তোমার আছে চারিপাশে

স্বযোগ্যে সকলের তুমি ছিলে না অধিপতি!

.

পাতা ছিল ঘ্রাণ ছিল ছিল উড়ে যাওয়া চিল

নীল ছিল হলুদ ছিল জোনাকিরা ছিল প্রতিদিন ;

নিভে গেলে আলো তাদের আর্তনাদে তাই

আবার ধীরে সবুজ আরও নীল দেখতে পাই।

.

এ পৃথিবী আবার অষ্টাদশী হবে

তুমি শুধু না ছুঁয়েই ধরে রেখো হাত

প্রিয়তমা আমার বন্ধ হয়ে থাকো কটাদিন

খোদার কসম নিভে যাবে এই আগুন মড়ক রাত !

.

শিল্পিত পারু

বাড্ডা/এপ্রিল ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published.