বিহঙ্গ পুরাণ : শিল্পিত পারুর কবিতা


শিল্পিত পারু


শিল্পিত পারু‘র কবিতা


বিহঙ্গ পুরাণ


একটা পাখি নির্ঘুম হৃদয়ের কাছে
একা এসে উড়ে বসে মগজের কার্নিশে
বাবুই এর মতো মুখ তার পাখনায় যেন শালিকের মায়া ;
নিদারুণ চোখে তার কামনার রং রাঙ্গা সারসের মতো ;
কেন সে ঘুরে আসে চুপে কথা কয়?

জানিনি কি সেই গান প্রগাঢ় পিতামহের কাছে?
শুনিনি কি? আঁচলের নিচে শুয়ে কভু দেখিনি কি সে পাখির মুখ

কত সাথী উল্লাসে উঁচু উঁচু আকাশের কাছে ভাঙ্গিনি কি বুলবুলির বাসা?
শুনেছি কি তারপর কোন মায়াবী অভিমানী গান!
এখন কেন বুকের আঙ্গিনায় বাজে চড়ুয়ের নুপুর
সাদা বক কেন চরে বেদনার বিলে !


এইসব পাখিদের আমি কভু ডাকিনিতো একা
দেখিনি কি তবু ছুঁয়ে তাহাদের হৃদয়!
এই ভেজা দুপুর, রক্তিম সকাল অথবা নরম গোধুলির আলোয়
একা একা ঘুরে তাই কথা কয় ?

তবু নীল আকাশেরা উড়ে যায়
ঘুঘু বসে খেলা করে প্রশান্তির মাঠে
ক্লান্ত অতীতের ডালে ঝিঙে বসে পড়েনি কি কোন এক শিকারীর ফাঁদে ;
আলো নিভে গেলে পরে পেঁচা এসে বুড়ি চাঁদের মতো
চরকায় কেটে যায় হৃদয়ের সুতো!

পাখি ওরে পাখি আমার
হৃদয়ের সব ঋণ শোধ হলে পরে  তবু কেন জাগো অবিরত !!


শিল্পিত পারু
কড়াপুর, বরিশাল
১৫ মার্চ,২০২০



আরো পড়ুন : ‘সন্ধ্যাবালিকা’ শিল্পিত পারুর কবিতা

Leave a Reply

Your email address will not be published.