দেবী দূর্গার জন্ম সংসার (শেষ পর্ব)


পারভেজ সেলিম

পারভেজ সেলিম ।।


দূর্গা পুজা হিন্দু বাঙ্গালীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব । কিন্তু কে এই দেবী দূর্গা ? কিভাবে তিনি পৃথিবীতে আসলেন? কিভাবে বিয়ে হলো দূর্গা আর মহাদেবের। এর নানা রকম গল্প আছে । শেষ পর্বে নজর দেয়া যাক দূর্গার পার্বতী রুপের দিকে

 
 

দূর্গার পার্বতীরুপ :  শেষ পর্ব)

 

পুর্বজন্মে দূর্গা দক্ষের কন্যা ছিলেন । তার নাম ছিল সতী, স্বামী ছিল শিব বা মহাদেব। এ জন্মে তিনি মহাদেবের পত্নী হবার কামনায় হিমালয়ের ঔরসে মেনেকার গর্ভে আবার জন্মগহন করেন । হিমালয় পর্বতের কন্যা বলে তার নাম হয় পার্বতী তপস্যার জন্য এই সময় মহাদেব হিমালয়ে এলেপার্বতী মহাদেবকে স্বামী হিসেবে পাবার জন্য পূজা আরম্ভ করেন। মহাদেব এই সময় ধ্যানে এতটাই মগ্ন ছিলেন যেপার্বতীর এই পূজাকে উপলদ্ধি করতে পারলেন না। 

 

এদিকে দেবতা ও মানবকুলের উপর অত্যাচার শুরু করলে তারকাসুরসকল দেবতা এর প্রতিকারের জন্য ব্রহ্মার শরণাপন্ন হন। ব্রহ্মা তাদের জানলেন যেএকমাত্র মহাদেবের পুত্র এই অসুরকে হত্যা করতে পারবেন। সে কারণেমহাদেবের সাথে পার্বতী বা দূর্গার বিবাহ হওয়া প্রয়োজন


আরো পড়ুন :


 

ব্রহ্মার ভবিষ্যৎবাণী অনুসারে দেবতারা মহাদেবের ধ্যানভঙ্গের উদ্যোগ গ্রহণ করলেন এবং প্রেমের দেবতা মদনদেবকে বা কামদেব কে মহাদেবের কাছে পাঠালেনকামদেব কামবাণ নিক্ষেপ করে মহাদেবের ধ্যান ভঙ্গ করলেমহাদেবের তৃতীয় নয়নের তেজ দ্বারা কামদেব ভষ্মীভূত হন। 

 

এরপর মহাদেব আরাধনার জন্য হিমালয় ছেড়ে অনত্র্য চলে যান। এরপর গভীর দুঃখে পার্বতী কাতর হয়ে পড়লে নারদ এসে পার্বতীকে জানালেন যেতপস্যার দ্বারা মহাদেবের পূজা করলেই ইনি তাঁকে লাভ করবেন। 

 

এরপর কঠোর তপস্যা শুরু করেন দূর্গা। পরে তপস্যায় সন্তুষ্ট হয়ে মহাদেব বৃদ্ধ ব্রাহ্মণের বেশে পার্বতীর কাছে উপস্থিত হয়ে ভিক্ষা প্রার্থনা করেন। পার্বতী বৃদ্ধকে স্নান করে এসে আহার গ্রহণ করতে অনুরোধ করলেন। বৃদ্ধবেশী মহাদেব গঙ্গায় স্নান করতে গেলে একটি মকর বা কুমির আক্রমণ করে। 

 

বৃদ্ধ দূর্গার কাছে সাহায্য প্রার্থনা করলে দূর্গা বৃদ্ধকে রক্ষা করার জন্য অগ্রসর হন। এই সময় মহাদেব তাঁর স্বমূর্তি ধারণ করে দূর্গা/পার্বতীর হাত ধরেন। পার্বতী বিষয়টি তাঁর পিতা হিমালয়কে জানালে হিমালয় পার্বতীকে মহাদেবের হাতে সমর্পণ করেন এরপর শুরু হয় পার্বতী বা দূর্গার সাথে মহাদেব বা শিবের সংসার ।

 
 

পারভেজ সেলিম

লেখক ও চলচ্চিত্রকার


 



৭০ thoughts on “দেবী দূর্গার জন্ম সংসার (শেষ পর্ব)

  1. Pingback: snuscore
  2. With havin so much content do you ever run into any problems of plagorism
    or copyright violation? My website has a lot of completely unique content
    I’ve either written myself or outsourced but it appears
    a lot of it is popping it up all over the web without my authorization. Do you
    know any techniques to help reduce content from being ripped off?
    I’d truly appreciate it.

  3. Heya fantastic website! Does running a blog such as this require
    a great deal of work? I have no understanding of programming however I had
    been hoping to start my own blog in the near future. Anyway,
    if you have any recommendations or techniques for new blog owners please share.
    I understand this is off topic but I simply had to ask.
    Kudos!

  4. Pingback: meja365
  5. Pingback: poker-info.net
  6. Pingback: meet and fuck now
  7. May I simply just say what a comfort to discover somebody who really knows what they are talking about
    on the net. You actually understand how to bring an issue to
    light and make it important. More people really need to read this and understand this side of your story.
    It’s surprising you are not more popular because you certainly possess the gift.

  8. Heya! I know this is kind of off-topic however I needed to
    ask. Does running a well-established blog such as yours require a
    massive amount work? I am brand new to blogging but I do write
    in my journal every day. I’d like to start
    a blog so I can share my experience and thoughts online.
    Please let me know if you have any kind of suggestions or tips for brand new aspiring bloggers.
    Appreciate it!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x