ভেঙ্গে ফেলা হচ্ছে ‘অভিসার’

শাকিল হাসান ।।

ঢাকার প্রথম শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত সিনেমা হল ‘অভিসার’।বিষয়টি জানান দিতে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়েছিল হলটির মালিকপক্ষ। ১৯৬৮ সালের দিকে টিকাটুলির মোড়ে ২৬ কাঠা জমিতে ব্যবসায়ী কামাল উদ্দিনের হাত ধরে প্রতিষ্ঠিত হয় ‘অভিসার’। প্রায় চৌদ্দ’শ আসনের হলটি সেই সময়ই ঢাকার বাসিন্দাদের বিনোদনের অন্যতম জায়গা হয়ে উঠেছিল।

 দেনার দায়ে ১৯৯২ সালে কে এম আর মঞ্জুর ও সফর আলী ভূঁইয়ার কাছে ‘অভিসার’ বিক্রি করেন কামাল। মালিকানা পাওয়ার পর ‘অভিসার’ হলের দোতলায় দু’শ আসনের ‘নেপচুন’ নামে আরেকটি হল করেন সফর ও মঞ্জুর। যদিও ‘নেপচুনে’ চালানো হতো ইংরেজি সিনেমা। আর শেষ দিকে অভাবে স্বভাব নষ্টে পর্ণও চলেছে ‘নেপচুনে’। তবে ‘অভিসার’ হলে শুরু থেকেই বাংলা, উর্দু জনপ্রিয় সিনেমাগুলোই প্রদর্শিত হয়েছে।

টিকাটুলির মোড়ের এই হলটি নিয়ে ‘ঢাকা এ্যটাক’ সিনেমায় একটি আইটেম সংও আছে। দুই দশক ধরেই ৪৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারি নিয়ে ধুকছিল হলটি। ২০১৯ সালে যখন ‘অভিসার’র কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলেছিলাম, তখন তারা জানিয়েছিলেন হলটির সংস্কারের কথা।

দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকায় হলটির অস্তিত্বে শেষ পেরেক ঠুকেছে ‘করোনা’ ভাইরাস। ‘অভিসার’ ভেঙে কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন এর মালিকপক্ষ। ৫২ বছরের পুরানো সিনেমা হলটি ভেঙে ফেলা হলেও স্মৃতি হিসেবে নামটাকে টিকিয়ে রাখতে ওই ভবনেই দেড়’শ আসনের ছোট সিনেমা হল রাখা হবে। তবে ‘নেপচুন’নামে কোনো হল থাকছে না।

শাকিল হাসান

গণমাধ্যমকর্মী

Leave a Reply

Your email address will not be published.